এ কেমন অবিচার নাসিরের সাথে

সদ্য শেষ হলো ক্রিকেট পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। এরপর চলতি মাসের শেষের দিকে আবার দক্ষিণ আফ্রিকার আমন্ত্রণে দেশটিতে সফর করবে টাইগাররা। আর সে লক্ষ্যে শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

জানা গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দল চূড়ান্ত হবে বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের গুলশানের বাসায়। নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবর, দল অনুমোদনের জন্য বিসিবি সভাপতির বাসায় প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে, ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান আকরাম খান, ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন ও বোর্ড পরিচালক আই এইচ মল্লিক। এখন চলছে সেই দল নির্বাচনী সভা। সবকিছু ঠিক থাকলে হয়তো আজ (শনিবার) সন্ধ্যা নাগাদ ঘোষিত হয়ে যেতে পারে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষের টেস্ট দল।

এর আগের দিন বোর্ড সভাপতি আগের দিন মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। সেখানে মুশফিককে নিয়ে খোলামেলা কথা বলেন তিনি। বলেন, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে নিজের ইচ্ছাতেই ছয়ে ব্যাটিং করেছেন মুশফিক। অথচ ম্যানেজম্যান্ট থেকে তাকে চারে নামার নির্দেশ দেয়াও হয়েছিল। ’ এককথায় মুশফিককে কথার মার প্যাঁচে তুলোধুনো করেন পাপন।

কিন্তু এর আগে অর্থাৎ চট্টগ্রামে টেস্ট শেষ হবার পর মুশফিক বলেছেন ভিন্ন কথা। জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে মুশফিক বলেন, আমার কিপিং ও ব্যাটিং অর্ডার কী হবে তা উপরের কর্তাদের কাছে জিজ্ঞেস করুন। বোঝাই গেল মুশফিক, কোচ ও পাপনের দিকেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। পাপন তার জবাব দিতে গিয়ে আকার ইঙ্গিতে মুশফিককে একহাত নিয়ে ছেড়েছেন।

তবে কিপার মুশফিকের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাকে কিপিং করতে দেখা নাও যেতে পারে। মুশফিক কিপিং না করলে বিকল্প একজনকে কিপিং করতেই হবে। বাংলাদেশ দলের যে গঠন বিন্যাস তাতে শুধু স্পেশালিষ্ট কিপারের টেস্ট দলে থাকার সম্ভাবনা খুব কম। তাই মুশফিক ইপিং না করলে লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান ও আনামুল বিজয়ের একজনকে গ্লাভস হাতে দেখা যেতে পারে।

এদিকে টপঅর্ডার নিয়েও দেখা দিতে পারে সংশয়। কারণ তামিম ছাড়াও কেউই ভালো কিছু উপহার দিতে পারেনি টপঅর্ডারে। সৌম্য-মুমিনুল ছিলেন একেবারে ব্যর্থ। জাত পরিচয় তো দূরের কথা ব্যক্তি পরিচয় তুলে ধরতে ব্যর্থ দু’জন। তাই এনামুলকে টপঅর্ডারে বসানোর চিন্তা বিসিবির বসের। যদিও প্রধান নির্বাচকের কথা খোলাসা যে কিছু একটা হতে যাচ্ছে এনামুল ইস্যুতে। কপাল খুলতে পারে তার। বিজয় ছাড়াও এইচপি দলের হয়ে ইংল্যান্ডে অবস্থান করা নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়েও চিন্তা বিসিবির। এই তরুণ দলে জায়গা পেলে অবাক হবার কিছু থাকবে না। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার দল থেকে অনিবার্যভাবেই বাদ পড়ছেন নাসির হোসেন।

সূত্র : খেলাধুলা ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *