কফি যখন ত্বকের বন্ধু!

অনেকে চায়ের তুলনায় কফিকে বেশি পছন্দ করে। কফি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অধিক উপকারী। এটি ঘুমের পরিমাণ শিথিল করে। শরীরের বিভিন্ন রোগ দমনের পেছনেও কফি কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। তবে ত্বকের যত্নেও এর তুলনা নেই। কীভাবে ত্বকের যত্নে কফি ব্যবহার করা যায়, আজ আমরা জানব।

কফি ফেসিয়াল স্ক্রাব: ত্বক সজীব রাখতে কফি দিয়ে তৈরি স্ক্রাব বেশ কাজে দেয়। এক্ষেত্রে ৩ টেবিল-চামচ কফির গুঁড়ার সঙ্গে ১ টেবিল-চামচ বাদামি চিনি এবং ১ টেবিল-চামচ তেল (নারিকেল, অলিভ বা কাঠবাদাম তেল হতে পারে) একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি পরিষ্কার ত্বকে লাগিয়ে মাসাজ করতে হবে। সবশেষে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেললেই ত্বক দেখাবে উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত।

কফি মাস্ক: ত্বক টানটান করতে ২ টেবিল-চামচ কফির গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ কোকো পাউডার, ৩ টেবিল-চামচ টক দই এবং ১ টেবিল-চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি পুরো ত্বকে লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করে: চোখের ফোলা ভাব ও কালো দাগ দূর করতে কফি কার্যকরী একটি উপাদান, যা চোখের চার পাশের কালো দাগ সারিয়ে তুলতে রূপচর্চায় ব্যবহৃত হতে পারে।

কফির গুঁড়া পানি দিয়ে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে, এটি চোখের নিচে ও চোখের পাতায় লাগিয়ে রাখুন। এতে আপনার চোখের নিচের রক্তসঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে, চোখে আরাম ও স্বস্তি আসবে, চোখের উজ্জ্বলতা বাড়বে, চোখের চার পাশের অতিরিক্ত পানি শোষণ করে চোখের ফোলা ভাব সারাতে সাহায্য করবে।-সূত্রঃ টাইম্‌স অফ ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *