ব্রেকিং নিউজ: প্রখ্যাত বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবী এই মাত্র মারা গেলেন

সিনেমা দেখেছি , কিন্তু শ্রী দেবীর সিনেমা দেখিনি এমন লোক খুঁজে পাওয়া মুশকিল , যদিও তিনি ছিলেন সেকালের অভিনেত্রী। বাবা মার কাছে তার নাম যত বার শুনেছি অন্য কোনো নায়ক নায়িকার নাম তার অর্ধেক ও শুনি নাই।
প্রখ্যাত বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবী হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে দুবাইতে মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। শনিবার রাতে দুবাইর একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে বলে এক খবরে নিশ্চিত করেছে এনডিটিভি। ১৯৬৭ সালে শিশু শিল্পী হিসেবে বলিউডের রুপালি পদ্মায় আত্মপ্রকাশ করেন বলিউডের প্রথম নারী সুপার স্টার শ্রীদেবী। তিনি খ্যাতনাম পরিচালক বরুন কাপুরের স্ত্রী। এছাড়াও তার দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবী অসংখ্য জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেছেন। দীর্ঘ বিরতি দিয়ে ২০১২ সালে তিনি ইংলিশ ভিংলিশ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যেমে আবারও বলিউডের পর্দায় ফিরে আসেন।

তিনি তামিল, মালায়লাম, তেলেগু, কান্নাডা এবং হিন্দি ভাষায় অসংখ্য জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেছেন। তিনি ২০১৩ ভারতের সবচেয়ে চতুর্থ সর্বোচ্চ পুরষ্কার পদ্মাশ্রী অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি ভারতীয় নারী অভিনেত্রীদের মধ্যে সর্বাধিক পুরস্কার জয়ী অভিনেত্রী।

তার মৃত্যুর সময় শয্যার পাশে ছিলেন, স্বামী বরুন ও মেয়ে খুশি। তাঁর ভগ্নিপতি সঞ্জয় কাপুর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানান, রাত ১১টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে তার মৃত্যু নিশ্চিত করেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। শ্রীদেবী ১৯৬৩ সালে ভারতের তামিল নাড়ু রাজ্যে ১৩ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন। তার আসল নাম শ্রী আম্মা ইয়াংগার আয়য়াপন।

বক্স অফিসে হিট হওয়া তাঁর ছবি মধ্যে রয়েছে উল্লেখ্য যোগ্য হচ্ছে, মাওয়ালি (১৯৮৩), তোহফা (১৯৮৪), মিস্টার ইন্ডিয়া (১৯৮৭), চাঁদনী (১৯৮৯) ‘সাদমা’ (১৯৮৩), চালবাজ (১৯৮৯), এবং নাগিন। শ্রীদেবীর সমালোচকরাও বলেন, তার অভিনীত ‘লামহে’ ভারতীয় সিনেমার ১০০ বছরের ইতিহাসে সেরা ১০টি রোমান্টিক সিনেমার মধ্যে অন্যতম যেটি মুক্তি (১৯৯১) সালে ‍মুক্তি পেয়েছিল এছাড়াও তার হিট ছবি ছিলো গোমরাহ (১৯৯৩) ২০১৭ সালে শ্রীদেবী অভিনীত শেষ ছবি ‘মম’ও বক্স অফিসে যথেষ্ট সাফল্য পেয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *