৩৫ বছর নিষেধাজ্ঞার পর সৌদি আরবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু

৩৫ বছর নিষেধাজ্ঞার পর সৌদি আরবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু
দেখুন ইসলাম কে ধ্বংস করার জন্য ইহুদি খ্রিস্টান রা কেমন চাল চাললো

দীর্ঘ ৩৫ বছর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর রক্ষণশীল মুসলিম রাষ্ট্র সৌদি আরবে শুরু হয়েছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদশর্নী। রবিবার একটি অস্থায়ী প্রেক্ষাগৃহে শিশুদের অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়। সোমবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।


খবরে বলা হয়েছে, আগামী মার্চ মাসে প্রথম স্থায়ী প্রেক্ষাগৃহ উদ্বোধন করা হবে। চলচ্চিত্র প্রদর্শন ছাড়াও বেশ কিছু ক্ষেত্রে সংস্কারমূলক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এরই মধ্যে ঘরোয়া কনসার্ট, কৌতুক অনুষ্ঠান ও নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বর্তমানে কর্তৃপক্ষ অস্থায়ী স্থাপনায় চলচ্চিত্র প্রদর্শন করছে। রবিবার দেশটির জেদ্দা শহরে একটি সাংস্কৃতিক হলে প্রজেক্টর ও লাল গালিচা বসিয়ে প্রেক্ষাগৃহ তৈরি করা হয়েছে।

সপ্তাহব্যাপী প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে সিনেমা ৭০ নামের প্রতিষ্ঠান। এর প্রধান মামদৌহ সেলিম বলেন, এখন পর্যন্ত চলচ্চিত্র প্রেক্ষাগৃহের কোনও অবকাঠামো নেই। ফলে চলচ্চিত্র প্রদর্শনের জন্য আমরা বিকল্প ব্যবস্থা কাজে লাগাচ্ছি।

সেলিম আরও বলেন, ১১ ডিসেম্বর চলচ্চিত্র প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর এই প্রদর্শনীর উদ্যোগ নেওয়া হয়।

১৯৮০-র দশকে সৌদি আরবের ইসলামবিদদের চাপের মুখে দেশটিতে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। তবে ৩২ বছরের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে দেশটি রক্ষণশীলতায় অনেক সংস্কার আনছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *