অন্ধকার রাতে স্ত্রীকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করল স্বামী

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার ধুনট গ্রামের সাদেক আলী ফকির তার স্ত্রীকে পুকুরের পানিতে চুবিয়ে হত্যা করেছেন। পারিবারিক ঝামেলাকে কেন্দ্র করেই সাদেক আলী ফকির(৬০) তার স্ত্রী কে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে।

১২ অক্টোবর মঙ্গলবার নিহত বিলকিছ বেগমের ভাই মঞ্জুর আলমের করা মামলায় আসামি সাদেক আলী ফকিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সাদেক আলী স্ত্রীকে হত্যা করায় কথা স্বীকার করে।

এলাকাবাসী জানায়, ১১ অক্টোবর সোমবার রাতে ধুনট গ্রাম থেকে হঠাৎ করেই সাদেক আলী ফকির ও তার স্ত্রী বিলকিছ বেগম নিখোঁজ হয়।বাড়ির পাশের প্রতিবেশিরা তাদের দুই জন কে অনেক খুঁজতে থাকে কিন্তু কোথাও সাদেক আলী ফকির ও তার স্ত্রী বিলকিছ বেগম কে খুঁজে পাওয়া যায় নি।পর দিন সকাল মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে বাড়ির কাছে একটি পুকুরে বিলকিছ বেগমের মরদেহ ভাসতে দেখে। এলাকাবাসী পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে।

কালাই থানার ওসি) মো. সেলিম মালিক বলেন, সোমবার রাতে সাদেক আলী তার স্ত্রী বিলকিছ বেগম কে নিয়ে তাদের বাড়ির কাছে একটি পুকুরের পাড়ে ডেকে নিয়ে যায়। স্ত্রীর প্রতি পূর্ব রাগ থাকার কারণে পরিকল্পনা করেই সাদেক আলী তার স্ত্রী বিলকিছ কে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে। তারপর সাদেক আলী এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

রিপোর্ট২৪বিডি/এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *