বিয়ের প্রলভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, লজ্জায় সন্তান প্রসব ধান ক্ষেতে

 

গত ২২ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার অকয়ারি পাড়ার একটি ধানক্ষেত থেকে একটি নবজাতকে উদ্ধার করে পুলিশ। নবজাতকের উদ্ধারের চার দিন পর ২৬ সেপ্টেম্বর অনুসন্ধান চালিয়ে নবজাতকের মাকে খু্ঁজে পেয়েছে পঞ্চগড় থানার পুলিশ।

গত ২২ সেপ্টেম্বর রাতে বোদা উপজেলার ময়দানদিঘীর অকয়ারি পাড়ার ধানক্ষেত থেকে কন্যা শিশুকে উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটি বর্তমানে পঞ্চগড় সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। ধান ক্ষেত থেকে নবজাতক উদ্ধারের রহস্য চারিদিকে ছড়িয়ে পরে। তখনি বের হয়ে আসে নবজাতকের বাবার পরিচয়।

পঞ্চগড় থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি জানান, স্কুলপড়ুয়া এক কিশোরীর সাথে তার খালাতো ভাই আটোয়ারি উপজেলার গোপালজোত গ্রামের ললি মোহনের ছেলে ধনেশের সাথে প্রেমের সম্পর্ক।ধনেশ ঔ কিশোরীকে বিয়ে করার কথা বলে অনেক বার শারীরিক সম্পর্ক করে।শারীরিক সম্পর্ক করার ফলে কিশোরী গর্ভবতী হয়। কিন্তু ধনেশ বিষয় এড়িয়ে চলে। কিশোরীর বাবা ধনেশ এর বাড়িতে তার মেয়ের গর্ভবতী হওয়ার কথা জানালে তারা কিশোরীর বাবা ও তার মেয়ে কে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

এ ঘটনার পরে কিশোরীর বাবা হুমকি আর লজ্জার ভয়ে কাউকে কিছু জানাতে পারেনি। কিশোরীটিকে তার বাবা ধনেশ এর ভয়ে আড়াল করে রাখে। ২২ সেপ্টেম্বর সবার আড়লে বাড়ির পাশে ধান ক্ষেতে কন্যা সন্তান জন্ম দেয়।

ওসি আরও জানান, বর্তমানে নবজাতক সুস্থ রয়েছে।কিশোরীর বাবা তিন জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি মামলা করে। আসামি দের কে গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে।

রিপোর্ট২৪বিডি/এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

BengaliEnglish