মহাকাশে সবচেয়ে শক্তিশালী স্যাটেলাইট পাঠলো নাসা

 

পৃথিবীর চারিদিকে সব সময় পর্যবেক্ষণ করছে নাসার সব স্যাটেলাইট ও আন্তর্জাতিক সব স্পেস স্টেশন। আর এর সাথে চলছে আকাশগঙ্গা আর মহাকাশ ছায়াপথ নিয়ে গবেষণা।মহাকাশে পৌঁছে গেছে নাসার সবচেয়ে শক্তিশালী স্যাটেলাইট।

নাসা এবার পৃথিবীর জলবায়ু পরিবর্তন দেখার জন্য সবচেয়ে শক্তিশালী মহাকাশযান পাঠিয়েছে।
ল্যান্ডসেট নাইন নামের এই স্যাটেলাইট পৃথিবীর
পরিবেশদূষণ,অবশিষ্ট বনাঞ্চল ওজলবায়ু পরিবর্তন পর্যবেক্ষণ করবে।

ক্যালিফোর্নিয়া থেকে আটলাস ভি রকেটে করে স্পেসক্রাফট ‘ল্যান্ডসেট নাইন’ গেছে মহাকাশে। ৮০ মিনিট পর রকেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় মহাকাশযানটি। ‘আটলাস ভি’ খুব জলদিই অদৃশ্য হয়ে যায়। ল্যান্ডসেট টিকে থাকবে ৫০ বছর। এটি ৫০ বছর ধরে পৃথিবীর পর্যবেক্ষণ করবে।

নাসার ল্যান্ডসেট ৯ মিশনের বিজ্ঞানী জেফ মাসেক বলেন, গত ৫০ বছরে পৃথিবীর অনেক পরিবর্তন হয়েছে। পঙ্গপালের আক্রমণম,হারিকেন,দাবানল সহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়েছে। এর ফলে একটু একটু করে পৃথিবী বাস্তুসংস্থান ধ্বংস হচ্ছে।

বিজ্ঞানীরা জানান,ল্যান্ডসেট ৮ আর ৯ এই দুটি স্যাটেলাইট পৃথিবীর উপকূলসহ জলবায়ু পরিবর্তন, কৃষিকাজ, ভূপৃষ্ঠের পানি, ভূমি ব্যবহার, আর পরিবেশ দূষণের যত ক্ষেত্র আছে, সব পর্যবেক্ষণে রাখবে। স্যাটেলাইটগুলোই তখন মানুষের চেয়ে বেশি বিস্তারিত তথ্য দেবে, পৃথিবীতে কি হচ্ছে কেন হচ্ছে।

১৯৭২ সাল থেকে ল্যান্ডসেট স্যাটেলাইট পৃথিবীর
পর্যবেক্ষণ করে কিন্তু ২০০৮ সালে জলবায়ু পরিবর্তন তথ্য প্রকাশ করে। বর্তমানে জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ দূষণ পর্যবেক্ষণ করবে
ল্যান্ডসেট ৮ ও ৯ স্যাটেলাইট।

রিপোর্ট২৪বিডি/এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *