হলে গিয়ে সিনেমা দেখার আহ্বান :জায়েদ খান

 

ঢালিউডে করোনার করণে যে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলো তা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা চলছে।ঢালিউডে নানা ধরনের সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে।বিভিন্ন বাজেটের সিনেমা মুক্তি অপেক্ষায় আছেন বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সভাপতি নায়ক জায়েদ খান।তিনি বলেন সিনেমা হল খোলার পর চন্দ্রাবতী কথা’ ও পদ্মাপুরান সিনেমা মুক্তি পেয়েছে।

সিঙ্গেল স্ক্রিনে মুক্তি পেয়েছে দেশি সিনেমা ‘এ দেশ তোমার আমার’ ও বাজি।এই সিনেমা দুটির একটিও তেমন ভাবে দর্শকে টানতে পারেনি।তবে বাজি সিনেমার প্রযোজক ও পরিচালক মনে করেছিলেন তাদের সিনেমাটি অনেক দর্শক টানবে এবং অনেক লাভ করবে।কিন্তু তাদের আশা আর পূরণ হয়নি।সিনেমাটি অসফল হয়েছে।

অন্য দিকে এ দেশ তোমার আমার সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে গত শুক্রবার। সারা দেশে ৩০ টি সিনেমা হলে এক সাথে মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমাটি।এ দেশ তোমার আমার সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন সোহেল রানা, মিজু আহমেদ,জায়েদ খান, দিতি,ডিপজল, রোমানা সহ আরও অনেক।
এই সিনেমাটি খুব বেশি সফল হয়নি।তাই সিনেমা হলের মেশিন সচল রাখতে হল মালিকরা এই সিনেমাটি হলে চালাচ্ছেন।

 

এ দেশ তোমার আমার সিনেমাটি সফল হয়নি এটা মানতে নারাজ জায়েদ খান। তিনি মনে করেন অনেক দিন পর হল খুলেছে।করোনার কারনে অনেক মানুষ হল বিমুখ হয়েছে।সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার ও শনিবার অন্য দিনের তুলনায় হলের দর্শক বেশি থাকে।তাই এই সিনেমাটি দর্শকদের কাছে পৌঁছাতে আরও সময় লাগবে।

জায়েদ খান আরও বলেন, এ দেশ তোমার আমার সিনেমাটি শূটিং হয়েছিল ৩৫ মিলিমিটারে হয়েছিল। পরে এই সিনেমাটি ডিজিটালে রূপান্তর করে সিনেমা হলে চালানো হয়েছে।এটি একটি দেশ প্রেম মূলক সিনেমা। এই সিনেমাটিতে দেশের জন্য দেশের নাগরিকদের যে কর্তব্য রয়েছে সে বিষয়টি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। বর্তমানে বাংলা চলচ্চিত্রের সিনেমার অবস্থা খুব একটা ভালো না।
করোনার কারণে অনেক মানুষ হল গিয়ে সিনেমা দেখতে চায় না। এর কারণে সিনেমা মুক্তি পেলেও হলে দর্শকের উপস্থিতি অনেক টায় কম।হলে যদি স্বাস্থ্য বিধি মেনে সিনেমা দেখার সুযোগ দর্শকদের জন্য করা হয় তবে আশা করা যায় হলে আস্তে আস্তে দর্শকের সংখ্যা বাড়বে।আর হলে যদি দর্শকের সংখ্যা বাড়ে তবে অভিনয় করতে অভিনেতা ও অভিনেত্রী দের আগ্রহ বাড়বে।

রিপোর্ট২৪বিডি/এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

BengaliEnglish