২০ তারিখে দেশে ফেরত আসছে পাচারকৃত ৩৬ নারী-শিশু

সংসারে অভাব এমন সময় নেই ভালো কাজ ঠিক সে সময় মনে আশা নিয়ে থাকে মানুষজন এমন সময়ভালো বেতন ও ভালো চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে পাচার হয়েছে অনেকেই।

তবে এবার ভারতে পাচারকৃত ৩৬ বাংলাদেশি নারী-শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে পাশাপাশি তাদেরকে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এসব নারী ও শিশু তাদের সবার বয়সই ১২ থেকে  ১৮ বছরের মধ্যে। ২ থেকে ৩ বছর আগে তারা বাংলাদেশের দেশের বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভারতে পাচারের শিকার হয়।

যাদের মধ্যে সকলেই বাংলাদেশী। বাংলাদেশের ভিন্ন ভিন্ন জেলার বাসিন্দা।

জানা যায়, ভারত পুলিশের পক্ষ থেকে পাচার হওয়ার পর উদ্ধারকৃত  এসব বাংলাদেশিকে দ্রুত তাদের মাতৃভূমি নিজ দেশ(বাংলাদেশে)
পাঠিয়ে দেওয়ার বিষয়ে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশসহ সরকারে বিভিন্ন দপ্তরে পাঠানো হয়েছে চিঠি।

এছাড়া জানা যায়, আগামী সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় যশোর বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারতীয় পুলিশ বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে ভুক্তভোগী এ সকল বাংলাদেশীরকে হস্তান্তর করবে।

আরো জানা যায়, জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার পাচার প্রতিরোধ নিয়ে কাজ করা এনজিও সংস্থা যারা ভারত থেকে ফেরত আসা এসব নারী, শিশুদের আইনি সহয়তা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে পুলিশের কাছ থেকে তাদেরকে গ্রহণ করবে।

জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের সিনিয়ার প্রগ্রামার অফিসার মুহিত হোসেন জানান, সংসারে অভাব অনটনের মুহুর্তে ভালো কাজ দেওয়া ও টাকার লোভবান দেখিয়ে সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কথা বলে দালালরা। এবং তাদের কথার উপর ভিত্তি দিয়ে অনেকেই পাচার করে ভারতে।
তবে  কিন্তু ভাল কাজ না দিয়ে সেই জায়গায়  বিভিন্ন ধরনের ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করে তাদের।

পরবর্তীতে  ভারতীয় পুলিশ যখনই  খবর পায় খবর পাওয়া মাত্রই তাদের পাচারকারীদের খপ্পর থেকে উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়।

সেখান থেকে  তাদের আশ্রয় হয় ভারতীয় এনজিও সংস্থার শেল্টার হোমে। পরে উদ্ধারকৃতরা বাংলাদেশি কিনা তা যাচাই করে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে  ট্রাভেল পারমিটে তারা ফিরে আসছে। দেশে ফেরার পর  তাদের আইনি সহয়তা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য কাজ করবে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার।

এছাড়া বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব জানান, ইতোমধ্যে আমরা পাচারকৃত নারী ও শিশুদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর  বিষয়ে চিঠি পেয়েছি। তাদেরকে ২০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে হস্তান্তরের পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রিপোর্ট২৪বিডি/এইচ এহ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *